ই-নলেজ এ আপনাকে সুস্বাগতম।এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং ই-নলেজ এর অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন।বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...।
37 বার প্রদর্শিত
05 মে "মতামত" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (গুণী) (321 পয়েন্ট)  

হেরাদী ফেরদৌস রাখি জ্ঞানপিপাসু ও সৌখিন একজন সাধারণ মনের মানুষ।পছন্দ করেন নিঃস্বার্থ ভাবে অপরকে সাহায্য করতে তাইতো তিনি নার্সিং কে পেশা হিসাবে নিয়েছেন।নিজেকে জানা ও অপরকে জানানোর অদম্য ইচ্ছার প্রয়াসে অনেক টাই জড়িয়ে গেছেন ই-নলেজ এর সাথে।বর্তমানে ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সাইন্স & মিডওয়াইফারি ২য় বর্ষতে অধ্যায়নরত আছেন।ই-নলেজের সাথে আছেন একজন সমন্বয়ক হিসেবে।

2 উত্তর

2 পছন্দ 0 অপছন্দ
06 মে উত্তর প্রদান করেছেন (পন্ডিত) (11,029 পয়েন্ট)  

কোনো মানুষকে বন্ধু হিসেবে নির্বাচন করতে হলে যে গুন কে অগ্রাধিকার দিতে হবে তা বর্ননা করতে গিয়ে আল্লাহ বলেন, 'হে মুমিনগণ, তোমরা আল্লাহকে ভয় কর এবং সত্যবাদীর সঙ্গী হও।'সুরা তওবা: আয়াত: ১১৯

তাই যার মধ্য কুরআন হাদিসের ভালোবাসা বা অনুভূতি আছে ইসলাম তাকে বন্ধু হিসেবে গ্রহণ করতে বলেছেন। আর যার মধ্যে নেই তার সাথে বন্ধুত্ব করতে নিষেধ করেছেন।

আল্লাহ বলেন, 'মুমিনগণ যেন অন্য মুমিন কে ছেড়ে কোনো কাফিরকে বন্ধুরুপে গ্রহণ না করে। আর যে এরুপ করবে আল্লার সাথে তার কোন সম্পর্ক থাকবে না।'সুরা আল-ইমরান: আয়াত:২৮


জামিনুল রেজা ওরফে জামি আহমাদ জ্ঞানপিপাসু ও সৌখিন একজন সাধারণ মনের মানুষ। পছন্দ করেন নিঃস্বার্থ ভাবে অপরকে সাহায্য করতে।নিজেকে জানা ও অপরকে জানানোর অদম্য ইচ্ছার প্রয়াসে অনেক টাই জড়িয়ে গেছেন ই-নলেজ এর সাথে।বর্তমানে তিনি দশম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত।জ্ঞান বিনিময়ের এই বিশাল প্লাটফর্মে নিরন্তর প্রচেষ্টায় জ্ঞান অন্বেষণে কাজ করে যাচ্ছেন একজন সমন্বয়ক হিসেবে।
06 মে মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (গুণী) (270 পয়েন্ট)  
সুন্দর বলেছেন ভাই।
0 পছন্দ 0 অপছন্দ
14 মে উত্তর প্রদান করেছেন (জ্ঞানী) (611 পয়েন্ট)  

আল্লাহতায়ালা পবিত্র কোরআনের অনেক জায়গায় বন্ধু নির্বাচনে মানুষ কোন পদ্ধতি অবলম্বন করবেন সেটি বলে দিয়েছেন। আল্লাহর নবী মুহাম্মদ (সা.) মক্কায় দীর্ঘ জীবন অতিবাহিত করেছেন। তার চারপাশে অসংখ্য মানুষ ছিল, আপনজন ছিল, ভাই-বেরাদারও ছিল। তাদের সবাইকে পাশ কাটিয়ে আল্লাহতায়ালা যাদের বন্ধুরূপে গ্রহণ করার নির্দেশ দিয়েছিলেন তা সূরা কাহাফের ২৮ নাম্বার আয়াতে স্পষ্টভাবে উল্লেখ আছে- ‘ধৈর্যের সঙ্গে আপনি নিজেকে তাদের সংস্পর্শে আবদ্ধ রাখুন যারা সকাল ও সন্ধ্যায় তাদের পালনকার্তাকে তার সন্তুষ্টি অর্জনের উদ্দেশে ডাকে এবং আপনি পার্থিব জীবনের সৌন্দর্য কামনা করে তাদের থেকে নিজের দৃষ্টি ফিরিয়ে নেবেন না’

এ আয়াতে উপদেশ নয়, অনুরোধ নয় সরাসরি আদেশ করেছেন। প্রথমে তিনি প্রজ্ঞাপন জারি করলেন, ধৈর্য-সহ্যের সঙ্গে আপনি নিজেকে তাদের সংস্পর্শে আবদ্ধ রাখুন। এরপর হুকুমের পাশাপাশি নিষেধাজ্ঞাও ঝুলিয়ে দিয়েছেন, ‘আপনি পার্থিব জীবনের সৌন্দর্য কামনা করে তাদের থেকে নিজের দৃষ্টি ফিরিয়ে নেবেন না’। তারা কারা যাদের থেকে দৃষ্টি ফেরাতে নিষেধ করেছেন? তারা হল, সকাল-সন্ধ্যায় যারা তাদের রবকে ডাকেন। রবের সন্তুষ্টি কামনা করেন। এটাই হল বন্ধুত্বের মানদণ্ড! দলবেঁধে শিকার করা নয়, মুভি দেখা, গান শোনা, মাউন্টট্রেকিং নয়, নয় সাইকেল অভিযাত্রা, আড্ডাবাজি নয়, আর্থিক সুবিধাপ্রাপ্তি নয়, ফেসবুক ফ্রেন্ড নয়।

অন্যত্র আল্লাহ বলেন- ‘হে মুমিনগণ, তোমরা আল্লাহকে ভয় করো এবং সত্যবাদীদের সঙ্গী হও’। [তাওবা- ১১৯]

খারাপ বন্ধুত্বের ভয়াবহতার কথা উল্লেখ করতে গিয়ে মহান আল্লাহ আরও বলেন, ‘জালেম সেদিন আপন হস্তদ্বয় দংশন করতে করতে বলবে, হায় আফসোস! আমি যদি রাসূলের পথ অবলম্বন করতাম, হায় আমার দুর্ভাগ্য, আমি যদি অমুককে বন্ধুরূপে গ্রহণ না করতাম। [ফুরকান-২৭,২৮]

এমন অনেক আয়াতে আল্লাহ মানুষকে বন্ধু বাছাইয়ের পদ্ধতি বাতলে দিয়েছেন।

14 মে মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (জ্ঞানী) (611 পয়েন্ট)  

বন্ধু নির্বাচনে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে। হাদিসে বন্ধুত্ব গ্রহণ ও তার মর্যাদা সম্পর্কে বহু বাণী উল্লেখ করা হয়েছে। শুধু ধার্মিক, ধৈর্যশীল, পরোপকারী ব্যক্তিকেই বন্ধু হিসেবে গ্রহণ করা উচিত। হুজুর সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের উপাধিগুলোর মধ্যে একটি হচ্ছে ‘হাবিবুল্লাহ’ অর্থাৎ আল্লাহর বন্ধু। শুধু এ শব্দটি দিয়েই বন্ধুত্বের গুরুত্ব ও উপকারিতা বুঝা যায়। এ জন্য হাদিসে বন্ধু নির্বাচনে বিশেষ সতর্কতা অবলম্বন করতে বলা হয়েছে। খারাপ বন্ধুর সংস্পর্শ ও বন্ধুত্বের জন্য কিয়ামতের ময়দানে আফসোস করতে হবে। নেক বন্ধু ও বন্ধুত্বের জন্য আরশের ছায়ায় স্থান পাওয়া যাবে। খারাপ বন্ধুত্বের সম্পর্কের কারণে যারা দুনিয়াতে গর্ব করে, কিয়ামতের দিন সে সম্পর্ক শুধু নিষ্ফলই হবে না, বরং তা শত্রুতায় পর্যবসিত হবে।

14 মে মন্তব্য করা হয়েছে করেছেন (জ্ঞানী) (611 পয়েন্ট)  

হুজুর সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম ইরশাদ করেন : ‘মুমিন ব্যতীত অন্য কাউকে সঙ্গী নির্বাচন করবে না’। [তিরমিযি]

ইমাম জাফর সাদিক (রহ.) বলেছেন, ‘পাঁচ ব্যক্তির সঙ্গে বন্ধুত্ব স্থাপন করা উচিত নয়। মিথ্যাবদী, নির্বোধ, ভিতু, পাপাচারি ও কৃপণ ব্যক্তি।

হযরত আলি (রা.) ইরশাদ করেন : নির্বোধের বন্ধুত্ব থেকে দূরে থাক। সে তোমার উপকার করতে চাইলেও তাকে নিয়ে তোমার ক্ষতি হবে। [সাদাকাত]

সঠিক বন্ধু নির্বাচন করলে হাশরের ময়দানে আল্লাহর আরশের ছায়ায় স্থান পাওয়ার ঘোষণা এসেছে, হুজুর সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেন, সাত ব্যক্তিকে কিয়ামতের ময়দানে আল্লাহ তার আরশের ছায়ায় স্থান দেবেন। (এর মধ্যে) ওই দুই ব্যক্তি যারা আল্লাহর জন্য একে অপরের সঙ্গে বন্ধুত্বের সম্পর্ক স্থাপন করেছে। [বোখারি]

হে যুবক! বন্ধু নির্বাচনের ক্ষেত্রে নিজের আবেগ, চাহিদা, স্বার্থ ইত্যাদী ত্যাগ করে অত্যন্ত বিচক্ষণতার সঙ্গে ধার্মিক, বুদ্ধিমান, পরোপকারী কাউকে বেছে নিন।

সংশ্লিষ্ট প্রশ্নগুচ্ছ

4 টি উত্তর
05 মার্চ "মতামত" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sajal ojha (জ্ঞানী) (943 পয়েন্ট)  
1 উত্তর
27 মে "মতামত" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নাহিয়ান (জ্ঞানী) (611 পয়েন্ট)  
3 টি উত্তর
18 মে "মতামত" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নাহিয়ান (জ্ঞানী) (611 পয়েন্ট)  
2 টি উত্তর
14 মে "মতামত" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন নাহিয়ান (জ্ঞানী) (611 পয়েন্ট)  
1 উত্তর

11,643 টি প্রশ্ন

12,516 টি উত্তর

1,535 টি মন্তব্য

437 জন সদস্য


ই-নলেজ বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম।কমিউনিটির এই প্ল্যাটফর্মের সদস্যের মাধ্যমে আপনার প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান পেতে পারেন পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন।মূলত এটি বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি অনলাইনে উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার গড়ে তোলা আমাদের লক্ষ্যে।

ডাউনলোড অ্যাপ

  1. মোঃ নুর আলম

    153 পয়েন্ট

    37 টি উত্তর

    1 মন্তব্য

    37 টি প্রশ্ন

  2. জামিনুল রেজা

    123 পয়েন্ট

    24 টি উত্তর

    3 মন্তব্য

    19 টি প্রশ্ন

  3. Muminul Islam

    106 পয়েন্ট

    3 টি উত্তর

    2 মন্তব্য

    7 টি প্রশ্ন

  4. আদিব মাহমুদ

    51 পয়েন্ট

    5 টি উত্তর

    19 মন্তব্য

    11 টি প্রশ্ন

  5. Rahim Islam

    43 পয়েন্ট

    8 টি উত্তর

    10 মন্তব্য

    5 টি প্রশ্ন

বিজ্ঞাপন
ই-নলেজ সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য ই-নলেজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার। বিস্তারিত...
...