ই-নলেজ এ আপনাকে সুস্বাগতম।এখানে আপনি প্রশ্ন করতে পারবেন এবং ই-নলেজ এর অন্যান্য সদস্যদের নিকট থেকে উত্তর পেতে পারবেন।বিস্তারিত জানতে এখানে ক্লিক করুন...।
52 বার প্রদর্শিত
07 সেপ্টেম্বর 2019 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন (বিশারদ) (2,702 পয়েন্ট)  

আব্দুল্লাহ আল মাসুদ মহা প্রশাসক হিসেবে ই-নলেজ এর সাথে আছেন। বর্তমানে তিনি ২০২০ সালের একজন বিজ্ঞান শাখার এসএসসি ক্যান্ডিডেট। স্বপ্ন দেখেন একজন ভালো কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ার হওয়ার। স্বপ্ন পূরণের দৃঢ় প্রত্যয়ে এগিয়ে যাচ্ছেন ই-নলেজের সাথে। তাই তিনি সকলের কাছে দোয়া প্রার্থী .....।

4 উত্তর

11 পছন্দ 0 অপছন্দ
14 নভেম্বর 2019 উত্তর প্রদান করেছেন (পন্ডিত) (11,029 পয়েন্ট)  
ধুমপান,মদ্যপান, সুর্যের অতিবেগুনী রস্মি, পরিশ্রম না করা, কোষের অস্বাভাবিক বৃদ্ধি, অনিয়ন্ত্রিত খাদ্য গ্রহণ ও নিজের লোকের কারোর ক্যান্সার থাকলে ইত্যাদি এসব কারনে ক্যান্সার হয়।।
জামিনুল রেজা ওরফে জামি আহমাদ জ্ঞানপিপাসু ও সৌখিন একজন সাধারণ মনের মানুষ। পছন্দ করেন নিঃস্বার্থ ভাবে অপরকে সাহায্য করতে।নিজেকে জানা ও অপরকে জানানোর অদম্য ইচ্ছার প্রয়াসে অনেক টাই জড়িয়ে গেছেন ই-নলেজ এর সাথে।বর্তমানে তিনি দশম শ্রেণিতে অধ্যয়নরত।জ্ঞান বিনিময়ের এই বিশাল প্লাটফর্মে নিরন্তর প্রচেষ্টায় জ্ঞান অন্বেষণে কাজ করে যাচ্ছেন একজন সমন্বয়ক হিসেবে।
8 পছন্দ 0 অপছন্দ
15 নভেম্বর 2019 উত্তর প্রদান করেছেন (প্রতিভাবান) (5,173 পয়েন্ট)  
10 জানুয়ারি সম্পাদিত করেছেন
ঠিক কি কারণে ক্যান্সার হয় সেটা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে সাধারণ কিছু কারণ খুঁজে পাওয়া গেছে।

বয়স

সাধারণত বয়স যত বাড়তে থাকে ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিও তত বাড়তে থাকে, কারণ এ সময়ে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ধীরে ধীরে কমতে থাকে। এক হিসেবে দেখা যায় যত মানুষ ক্যান্সারে আক্রান্ত হয় তাদের শতকরা ৭০ ভাগেরই বয়স ৬০ বছরের ওপর।

খাবার এবং জীবনযাপনের ধারা

খাবার এবং জীবনযাপনের ধারার সাথে ক্যান্সারের গভীর সম্পর্ক খুঁজে পেয়েছে গবেষকরা। যেমন, ধুমপান বা মদ্যপানের সাথে ফুসফুস, মুখ ও কণ্ঠনালীর এবং যকৃৎ বা লিভারের ক্যান্সারের যোগাযোগ রয়েছে। তেমনই ভাবে পান-সুপারি, জর্দা, মাংস, অতিরিক্ত লবণ, চিনি ইত্যাদি খাবারের সাথেও ক্যান্সারের যোগসূত্র রয়েছে। যারা সাধারণত শারীরিক পরিশ্রম কম করে তাদের মধ্যেও ক্যান্সারের প্রবণতাটা বেশি।

পারিবারিক ইতিহাস

ক্যান্সারের সাথে জিনগত সম্পর্ক রয়েছে বলেও প্রমাণ পাওয়া গেছে। এই কারণে পরিবারের কারো যদি ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঘটনা থাকে তাহলে অন্যদেরও ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি অনেকখানি বেড়ে যায়।

পরিবেশ এবং পেশাগত কারণ

রাসায়নিক পদার্থের সাথে ক্যান্সারের অনেক বড় একটা সম্পর্ক রয়েছে। যেমন, মেসোথেলিওমিয়া-তে (এক ধরনের দূর্লভ ক্যান্সার, এতে ফুসফুসের চারপাশ এবং পেটের দিকের কোষগুলো আক্রান্ত হয়) আক্রান্তদের ১০ জনের মধ্যে ৯ জনই এসবেস্টস ধাতুর সংস্পর্শে আসার কারণে এই ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়েছেন। সাধারণত জাহাজ তৈরির শিল্পের সাথে যারা জড়িত তাদের এই ধাতুর সংস্পর্শে আসার সম্ভাবনাটা বেশি থাকে। এই কারণেই অনেক দেশে এই ধাতুর ব্যবহার নিষিদ্ধ। একইভাবে রঙের কারখানা, রাবার বা গ্যাসের কাজে যারা নিয়োজিত তারা এক ধরনের বিশেষ রাসায়নিক পদার্থের সংস্পর্শে আসার কারণে মুত্রথলির ক্যান্সারে আক্রান্ত হন। পরবর্তীতে অনেক দেশে এসব রাসায়নিক পদার্থের ব্যবহারও নিষিদ্ধ করে দেয়া হয়েছে। পরিবেশগত কারণের অন্যতম একটা হচ্ছে সূর্য। রোদে বেশিক্ষণ থাকার কারণে ত্বকের ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়। তেজস্ক্রিয়তার কারণেও বিভিন্ন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি থাকে।
মৃন্ময় কান্তি দাস জয় অধ্যয়নত একজন শিক্ষার্থী।সবসময়ই সবকিছুকে বৈজ্ঞানিকভাবে ভাবতে ভালোবাসেন।বিজ্ঞানের নতুন নতুন উদ্ভাবন সম্পর্কে জানতে উৎসাহী।ভবিষ্যতে বিজ্ঞানের উন্নতিতে কিছু করতে চান।নিজের মেধার বিকাশ ও উন্নতি এবং মানুষকে নিঃস্বার্থভাবে সাহায্য করার লক্ষ্যে ই-নলেজের সাথে আছেন একজন বিশেষজ্ঞ হিসেবে।
1 টি পছন্দ 0 অপছন্দ
24 জানুয়ারি উত্তর প্রদান করেছেন (বিশারদ) (1,509 পয়েন্ট)  

ক্যান্সারের কারণগুলো:

ক) বংশগত/জেনেটিক

বাবা, মা, খালা এদের মধ্যে থাকলে তাদের সন্তানদের হতে পারে বা হওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি যেমন- ব্রেস্ট ক্যান্সার, কোলন ক্যান্সার।

খ) ধূমপান

বিভিন্ন ধরনের ধরনের ক্যান্সার হয় তার মধ্যে ফুসফুসের ক্যান্সার তাদের অন্যতম।

গ) পান, জর্দা সাদা পাতা, গুল ইত্যাদি ওরাল ক্যান্সার বা জিহ্বার ক্যান্সার করে।

ঘ) বিনাইন টিউমার অনেক দিন পর্যন্ত শরীরে থাকলে যেকোনো সময় ক্যান্সার হতে পারে। বেশির ভাগ কোলন ক্যান্সার এভাবেই হয়ে থাকে।

ঙ) রেডিয়েশন

কোনো জায়গায় রেডিয়েশন দিলে বা সূর্য রশ্মির ত্বকের ক্যান্সার করে থাকে। যেমন- চেরনোবিল এবং জাপানের নাগাসাকির পারমাণবিক বিস্ফোরণের অনেক বছর পর এখনো সেখানে অনেকেই ক্যান্সার আক্রান্ত হচ্ছে।

চ) পাথর/স্টোন

যেমন কিডনি, পিত্তথলির পাথর ক্যান্সার সৃষ্টি করে।

ছ) ক্রনিক ইনফেকশন

জরায়ুর সার্ভিক্স বা বোনের ক্রমিক ইনফেকশন থেকে জরায়ু ও বোনের ক্যান্সার হয়।

জ) রাসায়নিক বা কেমিক্যাল এজেন্ট

যেমন- এনিলিন ডাই মূত্রথলির ক্যান্সার সৃষ্টি করে।

খাদ্যে ব্যবহৃত ফরমালিন এসিড/পচন রোধ পদার্থ স্টমাক বা পাকস্থলীর ক্যান্সার করে চুলের কলব- স্ক্রিন/ত্বকের ক্যান্সার করে।

1 টি পছন্দ 0 অপছন্দ
15 এপ্রিল উত্তর প্রদান করেছেন (গুণী) (213 পয়েন্ট)  
অনেক কারনে হতে পারে । বিশেষ করে ধুমপানের কারনে ।

সংশ্লিষ্ট প্রশ্নগুচ্ছ

1 উত্তর
23 অক্টোবর 2019 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন RIHAN AFREEN (বিশারদ) (3,693 পয়েন্ট)  
1 উত্তর
02 মার্চ "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন Sajal ojha (জ্ঞানী) (943 পয়েন্ট)  
2 টি উত্তর
15 নভেম্বর 2019 "স্বাস্থ্য ও চিকিৎসা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন জামিনুল রেজা (পন্ডিত) (11,029 পয়েন্ট)  
1 উত্তর
29 নভেম্বর 2019 "স্বপ্নের ব্যাখ্যা" বিভাগে জিজ্ঞাসা করেছেন মো অনিক (প্রতিভাবান) (5,502 পয়েন্ট)  
1 উত্তর

11,673 টি প্রশ্ন

12,557 টি উত্তর

1,536 টি মন্তব্য

438 জন সদস্য


ই-নলেজ বাংলা ভাষায় সমস্যা সমাধানের একটি নির্ভরযোগ্য মাধ্যম।কমিউনিটির এই প্ল্যাটফর্মের সদস্যের মাধ্যমে আপনার প্রশ্নের উত্তর বা সমস্যার সমাধান পেতে পারেন পাশাপাশি অন্যদের প্রশ্নে উত্তর প্রদান করে অবদান রাখতে পারেন।মূলত এটি বাংলা ভাষাভাষীদের জন্য একটি প্রশ্নোত্তর ভিত্তিক কমিউনিটি। বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার পাশাপাশি অনলাইনে উন্মুক্ত তথ্যভান্ডার গড়ে তোলা আমাদের লক্ষ্যে।

ডাউনলোড অ্যাপ

  1. মোঃ নুর আলম

    227 পয়েন্ট

    55 টি উত্তর

    1 মন্তব্য

    56 টি প্রশ্ন

  2. জামিনুল রেজা

    123 পয়েন্ট

    24 টি উত্তর

    3 মন্তব্য

    19 টি প্রশ্ন

  3. Muminul Islam

    106 পয়েন্ট

    3 টি উত্তর

    2 মন্তব্য

    7 টি প্রশ্ন

  4. Rahim Islam

    95 পয়েন্ট

    22 টি উত্তর

    11 মন্তব্য

    15 টি প্রশ্ন

  5. আদিব মাহমুদ

    51 পয়েন্ট

    5 টি উত্তর

    19 মন্তব্য

    11 টি প্রশ্ন

বিজ্ঞাপন
ই-নলেজ সাইট টিতে কোনো কন্টেন্ট-এর জন্য ই-নলেজ কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। কনটেন্ট -এর পুরো দায় যে ব্যক্তি কন্টেন্ট লিখেছে তার। বিস্তারিত...
...